মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ইউনিয়নের ইতিহাস

মেখল হাটহাজারী উপজেলা সদরের সংলগ্ন একটি ইউনিয়ন। মেখলা শব্দ থেকে  মেখল নামের উৎপত্তি। মেখল অর্থ কটিবন্ধ বা কোমরের হার। স্ত্রী লোকেরা যে স্বর্ণের হার অলংকার পরিধান করে থাকে তাকে মেখলা বলা হয়। অনেকের মতে হালদা নদীর অনেকগুলো উপনদী এই গ্রামের উপর দিয়ে আকা বাকা হয়ে ইতসত্মত ছডিয়ে রয়েছে বলে মেখলা নামের উৎপত্তি হয়েছে। মেখল গ্রামের দক্ষিণে মিঠাছড়া, মাঝখানে সানখালী উত্তর পূর্বে বোয়ালীয়া খাল দক্ষিণ পূর্বে পরাগল খাল ছাড়া ও আরও অনেক উপনদী শাখা নদী প্রবাহীত। প্রাচীন প--তগন মেখলকে প্রাকৃতিক অপরূপ দৃশ্যের সাথে তুলনা করত। নারীল কোমরের অলংকারের সাথে মিল রেখেছেন মেখলা। এখানে  বঙ্গ বিখ্যাত বৈষ্ণব চুডামনি পুন্ড্ররীক বিদ্যানিধির জনমস্থান। নবাবী আমলের মুন্সী নজর মোহাম্মদ কাজী ও তার সৈনিক বিভাগের জমাদার মুন্সী মোহাম্মদ হানিফ এখানে অবস্থান করতেন। বাংলা ভাষার আদি নিদর্শন চর্যাপদের রচয়িতা সিদ্ধাচার্য কাহ্নপাদ এর প্রধান শিষ্যের নাম মেখলা। প্রখ্যাত প--ত শ্রীমত জ্যোতিঃ পাল মহাথেরো তার রচিত চর্যাপদ গ্রস্থে বলেছেন স্ত্রী লোকের নিতম্বের সামনের ভাগকে জঘন বা কোমর বলা হয়। চর্যপদ ৪নং প্রথম শব্দ তি-অড়া এর শাব্দিক অর্থ তি অড্ডা, ত্রিবৃত্তা। ত্রিবৃত্তা শব্দের অর্থ মেখলা বা জঘন। এখনে কবি নবীন চন্দ্র সেনের আদি পুরম্নষ বসতি স্থাপন করেন। মোজাফ্ফরপুর, রহিমপুর, রম্নহুলস্নাপুর, ও জাফরাবাদ নিয়ে মেখল ইউনিয়ন গঠিত হয়। এই ইউনিয়নের মোট লোকসংখ্যা ৩০০৩৬ জন। পুরম্নষ ১৫৮৭৮ জন এবং মহিলা ১৫১৫৮ জন। ইউনিয়নের আয়তন ১১.৬১ বর্গকিলোমিটার প্রতি বর্গকিলোমিটারে লোকসংখ্যার ঘত্ব ২৬৭৪ জন। শিক্ষারহার ৬০%।